সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ১২:০৯ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
এড. সুজার মৃত্যুতে জাপার রাজনীতিতে যে শূণ্যতার সৃষ্টি হলো তা পূরণীয় হবার নয়- রওশন এরশাদ।। কালিহাতীতে পিকনিকের নৌকা থেকে নদীতে পড়ে ঘাটাইলের যুবক নিখোঁজ মধুপুরে আকাশী ফুলবাড়ী মোড় হতে রানিয়াদ ভাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত সড়কের বেহাল অবস্হা শোকাবহ আগস্টের প্রথম দিনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের নির্দেশনায় মুন্সিগঞ্জে খাদ্য বিতরণ কর্মসূচি পালন করেছে ছাত্রলীগ। আশুলিয়ায় চার মাদক ব্যবসায়ী ও মিরপুরে ৩৭জুয়ারীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব! নড়াইলে অবসরে যাওয়া পুলিশ সদস্যদের সন্মাননাসহ সুসজ্জিত গাড়িতে করে বিদায় জানালো, এসপি প্রবীর কুমার রায় খুলনার পাইকগাছায় ৪ বছরের শিশু ধর্ষণ মামলায় স্মারকলিপি প্রদান প্রশাসনের মাইকিং অমান্য করে পাইকগাছার চাঁদখালীতে লকডাউনের মধ্যে গরুর হাট বসানোর অভিযোগ পাইকগাছায় ভাঙ্গা মাটির ঘরে তপন বিশ্বাসের মানবেতর জীবন যাপন পাইকগাছায় ৫ জুয়াড়ি আটক : থাানায় মামলা
ময়মনসিংহে জলাবদ্ধতাসহ বিভিন্ন সমস্যা নিরসনে চরাঞ্চলে ডিসি মিজানুর রহমান

ময়মনসিংহে জলাবদ্ধতাসহ বিভিন্ন সমস্যা নিরসনে চরাঞ্চলে ডিসি মিজানুর রহমান

আরিফ রববানী,(ময়মনসিংহ)=
ময়মনসিংহ জেলায় ডিসি হিসাবে দায়িত্ব গ্রহনের পর থেকে জেলার আইনশৃঙ্খলা,সরকারী সম্পদ উদ্ধার,অনিয়ম দুর্ণীতি ও জলাবদ্ধতা নিরসনে, খাদ্য দ্রব্যের ভেজাল নিয়ন্ত্রণের জন্য বিভিন্ন অভিযান পরিচালনা করে আসছেন জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান। এতে ময়মনসিংহের সর্বস্তরের জনতার মাঝে স্বস্থি ফিরে এসেছে। বিশেষ করে ময়মনসিংহ জেলার বিভিন্ন এলাকায় দীর্ঘদিন যাবৎ জলাবদ্ধতার কারণে বিভিন্ন ইউনিয়নের শত শত একর আবাদি জমি পানি বন্ধী অবস্থায় ছিল। পানির স্বাভাবিক গতি প্রবাহ বন্ধ থাকার কারণে অনেক বসতবাড়িতে সামান্য বৃষ্টিতেই পানি জমে যেত। অসহনীয় দুর্ভোগ এর মধ্যে দিনাতিপাত করতো এসব ইউনিয়নের সাধারণ মানুষজন।

ডিসি মিজানুর রহমানে নির্দেশনায় এসব জলাবদ্ধতা নিরসনে বিভিন্ন উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার ভূমি (এসিল্যান্ড) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গণ জলাবদ্ধতা থেকে এসব আবাদি জমিকে রক্ষা করে মানুষজনকে দুর্ভোগ মুক্ত করতে অভিযান পরিচালনা করে সাধারন মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরিয়ে দিয়েছেন।

ইতিমধ্যে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল ইসলাম , এসিল্যান্ড সুরাইয়া আক্তার লাকী তারাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা,ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, এসিল্যান্ড তরিকুল ইসলাম, জেলার সদর,ত্রিশাল ও তারাকান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার,ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ বিভিন্ন উপজেলার ইউএনও,এসিল্যান্ডগণ উপজেলা সমুহের বিভিন্ন ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামে জলাবদ্ধতা নিরসনে অভিযান পরিচালনা করে জলাবদ্ধতা নিরসনে ব্যাপক ভূমিকা রেখেছেন।ভোক্তভোগীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে পদক্ষেপ গ্রহণ করে তারা অনেক জায়গায় পরিদর্শন পূর্বক ফিশারি মালিকদের পাড় সরিয়ে নিতে নির্দেশনা প্রদান পূর্বক কঠোর হুঁশিয়ারি শুনিয়েছেন, নিয়েছেন পদক্ষেপ।

ময়মনসিংহের সুযোগ্য জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান প্রতি বুধবার গণশুনানির মাধ্যমে ময়মনসিংহ জেলার বিভিন্ন জায়গায় জলাবদ্ধতা, সরকারি রাস্তায় স্থাপনা নির্মাণ করে চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করার ক্ষেত্রে সর্বোপরি জনসাধারণের অসুবিধে হয় এমন কার্যক্রম রুখতে যে শুনানির ব্যবস্থা করেছেন তার প্রতি সমর্থন জানিয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার ভূমি এসিল্যান্ড সুরাইয়া আক্তার লাকী, ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, এসিল্যান্ড তরিকুল ইসলাম,
তারাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানাতুল ফেরদৌস উপজেলাময় ছুটে বেরিয়ে জলাবদ্ধতা এবং বিভিন্নভাবে জনগণের অসুবিধা সৃষ্টি হয় এমন পদক্ষেপ রুখতে সর্বদা তৎপরতা দেখাচ্ছেন। জলাবদ্ধতা নিরসনে তাদের উদ্যোগে জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। দীর্ঘদিনের কাঙ্খিত অপেক্ষার প্রহর ভেঙ্গে স্বস্তির সুবাতাস বইতে শুরু করেছে জনমনে। ডিসি মিজানুর রহমানের নির্দেশনায় যে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে তা বাস্তবায়নে শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন
সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার ভূমি এসিল্যান্ড সুরাইয়া আক্তার লাকী,ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, এসিল্যান্ড তরিকুল ইসলাম এবং তারাকান্দা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তাহমিনা আক্তার সহ বিভিন্ন উপজেলার ইউএনও, এসিল্যান্ড এবং জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ।

ইতিমধ্যে ময়ময়মনসিংহ সদর উপজেলার কয়েকটি গ্রামে জলাবদ্ধতা দেখা দিলে বিষয়টি ৯ই সেপ্টেম্বর বুধবারের অনলাইন গণশুনানীতে অংশ নিয়ে ভিডিওকলের সাহায্যে জেলা প্রশাসনের নজরে আনেন সদর উপজেলার চর ঈশ্বরদিয়া ইউনিয়নের হামজা নামক একজন অধিবাসী। জেলা প্রশাসক বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে সাথে সাথে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সদর ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার তারাকান্দা এর নেতৃত্বে একটি টিম গঠন করলে টিমটি সমন্বয়ক ডিডিএলজি ও স্থানীয় সরকার উপপরিচালক ময়মনসিংহ গালিব খানের সাথে সমন্বয় করে জলাবদ্ধতার উৎস সন্ধানে কাজ করে যাচ্ছে।

আবার কোন-কোন স্থানে জলাবদ্ধতার কবল থেকে সাধারন মানুষকে রক্ষা করতে নিজেই মাঠে স্বশরীরে পরিদর্শনে গিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থার মাধ্যমে জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করছেন জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান। তারই ধারাবাহিকতায় ২৩শে সেপ্টেম্বর বুধবার ময়মনসিংহ সদরের চরাঞ্চলের
দীর্ঘ ২০ বছরের সৃষ্ট জলাবদ্ধতা নিরসনে ময়মনসিংহ সদর উপজেলার সিরতা ইউনিয়নের আনন্দীপুর, চর খরিচা, চর ঈশ্বরদিয়া ইউনিয়নের আলালপুর, বড়বিলা ও তারাকান্দার কিছু অংশের সাধারন মানুষকে জলাবদ্ধতার কবল মুক্ত করতে উক্ত জায়গা গুলো সরেজমিনে পরিদর্শন করেন ময়মনসিংহ জেলার জেলা প্রশাসক মোঃ মিজানুর রহমান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ- পরিচালক এ কেএম গালিভ খান, ময়মনসিংহ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম, ময়মনসিংহ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশরাফ হোসাইন,তারাকান্দা উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোছাঃ জান্নাতুল ফেরদৌস, সিরতা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবু সাঈদ, চর ঈশ্বরদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ মোস্তুফা সেলিমসহ বিভিন্ন নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

চরাঞ্চলবাসীর দাবী অচিরেই ময়মনসিংহের ডিসি মোঃ মিজানুর রহমানের সুযোগ্য নেতৃত্বে ও কঠোরতায় এবার অবৈধ দখলদারদের হাত থেকে উক্ত খালগুলো দখলমুক্ত হবে এবং জনদুর্ভোগ লাঘব হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন চরাঞ্চল বাসী।

জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান বলেন-সমস্যাটি দীর্ঘদিনের। দিনে দিনে দখল হয়েছে খালগুলো। আমরা এ সমস্যার সমাধান করবোই ইনশাআল্লাহ। সেক্ষেত্রে তিনি সকলের সহযোগীতা প্রত্যাশা করেন ।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.net কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD