রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৫:৪০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
মাদারীপুর আড়িয়াল খাঁর নদী ভাঙন রোধে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন

মাদারীপুর আড়িয়াল খাঁর নদী ভাঙন রোধে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক আরিফুর রহমানঃ

মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলায় আড়িয়াল খাঁ নদের ভাঙন রোধে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী। রোববার বিকেলে উপজেলার সাহেবরামপুর ইউনিয়নের আন্ডারচর লঞ্চঘাট এলাকায় এ কর্মসূচি পালন করা হয়। ঘণ্টাব্যাপী চলা মানববন্ধনে ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের কয়েক শ লোক অংশ নেন।
মানববন্ধনে বক্তরা বলেন, গত কয়েক বছরে উপজেলার সাহেবরামপুর ইউনিয়নের ছোট-বড় বেশ কয়েকটি গ্রাম আড়িয়াল খাঁ নদের গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বসতভিটা ও আবাদি জমি হারিয়ে কয়েক শ লোক অসহায় জীবন কাটাচ্ছেন। এ বছর বর্ষার শুরু থেকে আবারও তীব্র ভাঙন দেখা দিয়েছে। ভাঙন ঠেকাতে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে অর্ধশত বসতভিটা, কয়েক শ একর কৃষিজমি, একটি কলেজ, প্রাইমারী স্কুল, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, দাখিল মাদ্রাসা, এতিম খানা, ৭টি মসজিদসহ বেশ কয়েকটি উল্লেখযোগ্য স্থাপনা আড়িয়াল খাঁ নদের ভাঙনে বিলীন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

মানবন্ধনে আন্ডারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল হালিম বলেন, ‘চলতি বছরে আড়িয়াল খাঁ ভাঙনে আন্ডারচর লঞ্চঘাট এলাকায় ২৫টি বাড়ি নদীতে বিলীন হয়েছে। দুইশটি পরিবার এখন ভাঙনের ঝুঁকিতে। এ ছাড়াও স্কুল, কলেজসহ বহু স্থাপনা ভাঙনের মুখে। এত স্থাপনা ভাঙনের ঝুঁকিতে থাকার পরেও পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে তেমন কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। আমরা দ্রুত সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’
সাদিকুর রহমান নামে আরও একজন বলেন, ‘নদীতে বারো মাস ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ ভালে বালু উত্তোলন করে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। তাদের কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গেলে হামলার শিকার হতে হয়। বালু উত্তোলন বন্ধসহ ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ না করলে নদীর পাড়ের প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে রক্ষা করা কঠিন হয়ে যাবে।

মানবন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন আন্ডারচর দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক গাজীউর রহমান শিকদার, নবারুন উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক বেল্লাল হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা মোয়াজ্জেম আকন প্রমুখ।
ভাঙন সম্পর্কে পানি উন্নয়ন বোর্ড মাদারীপুর কার্যালয়েল নির্বাহী প্রকৌশলী পার্থ প্রতীম সাহা বলেন, ‘কালকিনি আন্ডারচর লঞ্চঘাট এলাকায় নদীর ভাঙন ঠেকাতে বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন রোধে কাজ করা হচ্ছে। আরও অনেক স্থানে বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলা হবে। ভাঙনের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় স্থানীয় বাঁধ নির্মাণও করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

আরিফুর রহমান মাদারীপুর।।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.net কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD