শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ০৮:২০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
ক্ষেতলাল উপজেলার বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত

ক্ষেতলাল উপজেলার বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত

এস এম মিলন ক্ষেতলাল উপজেলা প্রতিনিধিঃ

জয়পুরহাটের ক্ষেতলালের বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরকে একাধিক অনিয়মের অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত করেছে ন্থানীয় সরকার মন্ত্রানালয়।
জানা যায়, ২২সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ৪৬.০০.৩৮০০.০১৭.২৭.০০১.১৬-৯৮৪ স্মারকে স্থানীয় সরকার বিভাগ, ইউনিয়ন পরিষদ-১ শাখার উপসচিব মোহাম্মদ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে ইউপি চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীরকে সাময়িক বরখাস্তের আদেশ দিয়েছে। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে ভিজিএফ তালিকায় কাটাকাটি/ফ্লুইট ব্যবহার, পৌরসভার বাসিন্দাকে ভিজিএফ সুবিধা প্রদানের অভিযোগ আনা হয় এবং জেলা প্রশাসক জয়পুরহাট এর সুপারিশে স্থানীয় সরকার বিভাগ ৯৮৩ নং স্মারকের প্রজ্ঞাপনে জনস্বার্থে সাময়িক তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। প্রজ্ঞাপনে আরো বলা হয়েছে সাময়িক বরখাস্তকৃত চেয়ারম্যানকে এ পত্র প্রাপ্তির দশ কার্য দিবসের মধে কেন তাকে স্থায়ী বরখাস্ত করা হবে না মর্মে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
ক্ষেতলাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ.এফ.এম আবু সুফিয়ান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয় ইপ-১ অধিশাখা হতে একটি প্রজ্ঞাপন পেয়েছি।
এ বিষয়ে সাময়িক বরখাস্তকৃত বড়াইল ইউপি চেয়ারম্যান আবু রাশেদ আলমগীর বলেন, একটি মহল মন্ত্রনালয়ের মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমাকে হেয় করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আমার বিশ্বাস সত্য প্রামনিত হবে।

এস এম মিলন ক্ষেতলাল উপজেলা প্রতিনিধিঃ

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.net কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD