বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৫:০২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
নড়াইলে ১৪৫ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার ১ কেশবপুরে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত এএসপি(মণিরামপুর সার্কেল) মামুনের মতবিনিময় সভা মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম‌্যান হাজী মোঃ বাচ্চু শেখ। পাইকগাছায় এক পুলিশ কর্মকর্তার ভাইয়ের দাপটে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী ইউএনও বরাবর অভিযোগ পাইকগাছা প্রেসক্লাব উন্নয়নে এমপি’র এক লাখ টাকা অনুদান ; প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে অভিনন্দন পাইকগাছায় স্বাস্থ্য শিক্ষা সেবা প্যাকেজ কার্যক্রমের উদ্বোধন শার্শার বাগআঁচড়ায় করোনা ঝুকি থাকলেও কেউ মানছেন না স্বাস্থ্য বিধি কন্ঠশিল্পী মাছুম তালুকদারের “বাবা আমার বাবা” পটিয়ার ইদ্রিস চৌধুরী কোটিপতি হওয়ার রহস্য চুনারুঘাটে জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় করেন জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান
মহালছড়ি উপজেলায় রাখাইন সম্প্রদায়ের ২দিন ব্যাপি ক্যায়াংছিমি প্রজ্জ্বলন ও প্রাচ্ছে (কল্পজাহাজ) ভাসানো উৎসব

মহালছড়ি উপজেলায় রাখাইন সম্প্রদায়ের ২দিন ব্যাপি ক্যায়াংছিমি প্রজ্জ্বলন ও প্রাচ্ছে (কল্পজাহাজ) ভাসানো উৎসব

(রিপন ওঝা)

খাগড়াছড়ি জেলার মহালছড়ি উপজেলায় বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের বর্ষাবাস শেষে অনুষ্ঠিতব্য ধর্মীয় উৎসব (ওয়াজ্যে পোয়ে) ৷ প্রবারণা পূর্নিমা উদযাপিত হয়েছে।
মহালছড়ি উপজেলা প্রবারণা পূর্নিমা উদযাপন কমিটির, রাখাইন সম্প্রদায়ের উদ্যোগে ও মহালছড়ি আর্যমিত্র বৌদ্ধ বিহার কমিটি তত্ত্বাবধানে, আর্যমিত্র বৌদ্ধ বিহার প্রাঙ্গনে ক্যায়াংছিমি প্রজ্জ্বলন ও প্রাচ্ছে (কল্পজাহাজ) ভাসানো উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।২দিন ব্যাপি অনুষ্ঠানে ১ম দিন ক্যায়াংছিমিং প্রজ্জ্বলিত করে শেষদিনে প্রাচ্ছে বা কল্পজাহাজকে মহালছড়ি টিলাপাড়া ঘাট হতে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় করে নানিয়ারচর উপজেলায়, বাঘমারা,মনাটেক বিল ও কাপ্তাইপাড়ার নদীপথ প্রদক্ষিণ ও পরিক্রমা শেষে সম্পূর্ণ ধর্মীয় রীতিনীতি অনুসারে কল্প জাহাজটি চেঙ্গী নদীর জলে ভাসানো হয়।

প্রবারণা পূর্ণিমার দিনে পঞ্চশীল ও অষ্টশীলসহ দানীয় অনুষ্ঠানের প্রাক্কালে বিহারাধ্যক্ষ ভান্তে ও ভিক্ষু সকলের উদ্দেশ্য বলেন আমরা যে বর্ষাবাস পালন করি, কেন পালন করি? তা আমাদের সমাজের ছোটবড় সকলের জানা উচিত। প্রবারণা পূর্ণিমা হলো তিন মাস ধ্যান সাধনার, তিন মাস শেষে এই প্রবারণা পূর্ণিমা পালন করা।
প্রবারণা অর্থ হচ্ছে -আহ্বান করা! কিসের আহবান? আহ্বান হচ্ছে আমার যদি ভুল, দোষ ত্রুটি থাকে, অপরাধ পাপ-অকুশল হয়ে থাকে,কোন নিন্দনীয় কর্ম থেকে থাকে তা আপনারা আমাকে ধরিয়ে দিন দেখিয়ে দিন শুধরিয়ে নেয়ার দিনে ধর্মীয় আচার আচরণ আহবান করা। বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের ধর্মীয় উৎসব প্রবারণা পূর্ণিমা। আষাঢ়ী পূর্ণিমা থেকে আশ্বিনী পূর্ণিমা তিথি পর্যন্ত তিন মাস বৌদ্ধ ভিক্ষুদের বর্ষাবাস শেষে এই প্রবারণা পূর্ণিমা উৎসব পালন করা হয়। বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সকল বয়সী নতুন পোশাক ও উন্নতমানের খাবার নিয়ে বিহারে গমন করবেন। বর্তমান বিশ্বের মহামারি করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ থেকে মুক্তি, বিশ্বের সুখ শান্তি, কল্যাণ ও মঙ্গলের কামনায় প্রার্থনা হোক পরিপূর্ণতার, সকলের জীবন আনন্দমূখর হোক,সুস্থতার হোক,নিরাপদের হোক, নিরোগের হোক শুভকামনা করি সব্বে সত্ত্বা সুখিতা হোন্তু। জগতের সকল প্রাণী সুখী হোক। দুঃখ থেকে মুক্তি লাভ করুক। অশান্তি বিশ্বে শান্তি বিরাজ করুক। জয় হোক বৌদ্ধ ধর্মের….সাধু সাধু সাধু।প্রবারণা পূর্ণিমার পরদিন থেকে এক মাসব্যাপী দেশের প্রতিটি বৌদ্ধবিহারে শুরু হয় বৌদ্ধদের কঠিন চীবর দানোৎসব।

উক্ত এ আয়োজনে রাখাইন সম্প্রদায় কর্তৃক ক্যায়াংছিমি উদযাপন-২০২০ ও আর্যমিত্র বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা কমিটি সমন্বয় বিহার প্রাঙ্গনে গত ১সপ্তাহ ধরে কার্যক্রম হাতে নিয়ে (ওয়াজ্যে পোয়ে)শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে ২দিন ব্যাপি(শনিবার ও রবিবার) ক্যায়াংছিমি প্রজ্জ্বলন ও প্রাচ্ছে (কল্পজাহাজ) ভাসানো উৎসবকে প্রাণবন্ত করে তোলাসহ বিহার কমিটির সার্বিক সহযোগিতায় ও পরামর্শদানে মারমা উন্নয়ন সংসদ মহালছড়ি শাখার সভাপতি হ্লাচিংমং চৌধুরী,মহালছড়ি আদর্শ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক বিটু মারমা এবং ক্যায়াংছিমি প্রজ্জ্বলন ও প্রাচ্ছে (কল্পজাহাজ) ভাসানো উদযাপন কমিটি-২০২০ এর সভাপতি শিক্ষক অংছেনওয়ান রাখাইন ও সাধারণ সম্পাদক সাইমং রাখাইনসহ অংচুথোয়াই রাখাইন, থোইমং রাখাইন,উচিংহ্লা রাখাইন, রিপ্রুচাই মারমা, মাপ্রু মারমা, মেমাচিং মারমা রামেশু কার্বারী পাড়ার ছোটবড় সকলের উপস্থিতিতে সার্বক্ষনিক শ্রম ও মেধা দিয়ে ধর্মীয় অনুষ্ঠানটি সাফল্যমন্ডিত করেছেন। এবারে শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা পালনের অনুষ্ঠানটি সংক্ষিপ্ত পরিসরের আয়োজন করা হয়। বৌদ্ধ জাতিসহ সকল ধর্মের, বর্ণের, গৌত্রের নির্বিশেষে করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে নিজেকে যার যার অবস্থান হতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশক্রমে ঘোষিত বিধি ও নিষেধ পালন করে এই শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠান আয়োজন কমিটি, মারমা উন্নয়ন সংসদ ও আর্যমিত্র বৌদ্ধ বিহার পরিচালনা কমিটির সদস্যগণ আন্তরিকভাবে
সংশ্লিষ্ঠ দায়ক দায়িকাবৃন্দ ও এলাকাবাসীসহ সকলকে মৈত্রীময় প্রবারণা পূর্ণিমার শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.net কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD