সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি:
বিশেষ সতর্কীকরন - "নতুন বাজার পত্রিকায়" প্রকাশিত সকল সংবাদের দায়ভার সম্পুর্ন প্রতিনিধি ও লেখকের। আমরা আমাদের প্রতিনিধি ও লেখকের চিন্তা মতামতের প্রতি সম্পুর্ন শ্রদ্ধাশীল। অনেক সময় প্রকাশিত সংবাদের সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল নাও থাকতে পারে। তাই যেকোনো প্রকাশিত সংবাদের জন্য অত্র পত্রিকা দায়ী নহে। নতুন বাজার পত্রিকা- বাংলাদেশের সমস্ত জেলা, উপজেলা, ক্যাম্পাস ও প্রবাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! বিস্তারিত: ০১৭১২৯০৪৫২৬/০১৯১১১৬১৩৯৩
সংবাদ শিরোনাম :
লক্ষ্মীপুরে সমঝোতায় সুবিধা নিলো ঠিকাদার রাজস্ব বঞ্চিত সরকার কোটি টাকার বালু পানির দরে বিক্রি গৌরনদীতে চার শত লোকের হাতে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী তুলে দিলেন জেলা পরিষদের সদস্য হারুন হাওলাদার কেশবপুরে আরও এক করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ি লকডাউন স্বপ্ন মৎস্য প্রকল্পের মৎস্যজীবিদের মাথায় হাত নড়াইলে লকডাউন কার্য্যকর করতে অভিযান চালিয়েছে এসপি প্রবীর কুমার রায় গৃহনির্মাণ কাজ পরিদর্শনে এডিসি মারুফুল আলম পাইকগাছায় করোনা প্রতিরাধ বিষয়ক পল্লী চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত পাইকগাছায় চিংড়িতে অপদ্রব্য পুশ করার অপরাধে আটক-১ বিএফএ-এর পক্ষ থেকে পাবনা জেলা প্রশাসককে বিদায়ী সংবর্ধনা প্রদান ফুলবাড়িয়ায় কলেজ পড়ুয়া ছাত্র ও তার বাবাকে জড়িয়ে মিথ্যা মামলার অভিযোগ
বানারীপাড়ায় মসজিদে বসে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি করার অভিযোগ

বানারীপাড়ায় মসজিদে বসে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি করার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক।। বানারীপাড়া উপজেলার সৈয়দকাঠী ইউনিয়নের আউয়ার বাজারে অবস্থিত আউয়ার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে গত শুক্রবার এশার নামাজের পূর্বে মসজিদে বসে মুসুল্লিদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগ কারী বানারীপাড়া উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান মামুন জানান গত চার তারিখ শুক্রবার এশার নামাজের পূর্বে মসজিদের ইমাম হাফেজ মো.মাঈনউদ্দিন’কে করোনার স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে কিছু আলোচনা ও সচেতনতা সম্পর্কে কিছু বলতে বলেন। ওই সময়ে উপস্থিত মুসুল্লিদের মধ্যে ওই গ্রামের মৃত সুলতান হাওলাদারে ছেলে মো. জাকির হোসেন উঠে কটুক্তি করে প্রধানমন্ত্রীর নাম ধরে বলেন প্রধানমন্ত্রী এদেশে করোনা এনেছেন ও করোনা প্রধানমন্ত্রীর সৃষ্টি,এছাড়াও তিনি উচ্চস্বরে বলেন প্রধানমন্ত্রীর ছবি টিভিতে দেখলে তারা যাত্রা খারাপ হয়। এসময় হাফিজুর রহমান মামুন মসজিদে বসে জাকির হোসেনের কটুক্তির তীব্র প্রতিবাদ জানান এবং তিনি বলেন মসজিদে বসে এধরনের বক্তব্য দেয়া যাবেনা ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে এধরনের কটুক্তি করা মোটেও ঠিক হয়নি। এ ঘটনায় মসজিদের ভিতরের পরিস্থিতি উত্তপ্ত হইলে মসজিদের ইমাম হাফেজ মো.মহিউদ্দিন ও মসজিদের মোয়াজ্জিন সুলতান হোসেন খান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন ও সবার উদ্দেশ্যে বলেন শেখ হাসিনা শুধু প্রধানমন্ত্রী নন তিনি এদেশের জাতির পিতার কন্যা তাকে নিয়ে মসজিদে বসে কোন ধরনের কটুক্তি বা উস্কানিমূলক বক্তব্য দেয়া যাবেনা। এছাড়াও যারা এগুলো করেন তার ভালো লোক নয়। পরবর্তীতে অভিযোগকারি হাফিজুর রহমান মামুন নামাজ শেষে সৈয়দকাঠী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল মন্নান মৃধা’কে বিষয়টি অবহিত করেন। তখন চেয়ারম্যান মন্নান মৃধা অভিযোগকারিকে বলেন শনিবার অর্থাৎ পরের দিন বিষয়টি নিয়ে তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সমন্বয়ে বিচার করবেন। অভিযোগকারি আরও জানান পরের দিন মসজিদের আসরের নামাজের পরে সৈয়দকাঠী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল মন্নান মৃধা,ইউনিয়ন আওয়ামী নেতা শহিদুল ইসলাম মৃধা,সাবেক চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন মন্টু,বিএনপির ইউনিয়ন সভাপতি আবু হানিফ হাওলাদার,যুবদল নেতা আব্দুর রহমান হাওলাদার,মসজিদের সভাপতি মাওলানা আবু সাদেক মো.ওদুদ,আউয়াল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক আব্দুল আলিম,শ্রমিকলীগ নেতা বজলুর রহমান, কৃষকলীগ ইউনিয়ন সভাপতি শাশের আলী খন্দকার ও আউয়ার বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিক মৃধার সহ শতাধিক লোকের উপস্থিতিতে বিচার শুরু হয়। বিচারের শুরুতে কারো কথা না শুনে ইউনিয়ন আওয়ামী নেতা শহিদুল ইসলাম মৃধা কটুক্তিকারি মো.জাকির হোসেন’কে বলেন তুমি বলো তোমার প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করা ভূল হইছে ওই সময় কটুক্তিকারী জাকির হোসেন উঠে সবার উদ্দেশ্যে বলেন প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করা তার ভুল হইছে। এসময় অভিযোগকারী উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান মামুন ও ইউনিয়ন কৃষকলীগের সভাপতি শাশের আলী খন্দকার এই বিচারের প্রতিবাদ করেন ও বলেন প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করার বিচার চেয়ে আমাদের ভূল হইছে আমরা ক্ষমা চাচ্ছি এই বলে মসজিদ প্রাঙ্গন ত্যাগ করেন। এ বিষয়ে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল মন্নান মৃধা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন যখন আমরা বিচারে বসি তখন হঠাৎ আওয়ামী নেতা শহিদুল ইসলাম মৃধা বিচারের রায় দিয়ে ফেলেন যার জন্য বিচার আর সম্পুর্ন হয়নি। এছাড়াও মসজিদের সভাপতি মাওলানা আবু সাদেক মো.ওদুদ ওই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে একই কথা বলেন। আভিযোগকারি উপজেলা সেচ্চাসেবকলীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান মামুন জানান আমরা এই পক্ষপাতমূলক বিচার মানিনা আমরা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। এদিকে এই ঘটনায় এলাকায় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media






© natunbazar24.net কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY AMS IT BD